Monthly Archives: ডিসেম্বর 2008

এই আনন্দ কই রাখি?

আহা ! কি আনন্দ আকাশে বাতাসে !
পাখি ডাকে ফুলে ফুলে
আহা কি আনন্দ আকাশে বাতাসে।

এই আনন্দ আমি রাখি কই। দুই কুখ্যাত নরাধাম, পাপিষ্ঠ, মুসলমান নামের কলংক, খুনী, ধর্ষক, যুদ্ধাপরাধীকে জনগন ভোটের মাধ্যমে জানিয়ে দিয়েছে “তুই রাজাকার দূরে গিয়ে মর।

নির্বাচনের আগে এই রাজাকার গুষ্ঠী ‘যুদ্ধাপরাধী কিসের, মীমাংসিত ইস্য, দেশে কোন যুদ্ধাপরাধী নেই’ ইত্যাদি বড় বড় বাতচিত করে বাগড়ম্বর করে চলছিল।

জনগন শুধু দাতে দাত চেপে সহ্য করেছে। ভোটের ক্ষমতা যখন এসেছে তখনই তারা সুস্পষ্ট বার্তা দিয়েছে।

“তুই রাজাকার
তুই যুদ্ধাপরাধী।
তুই দেশদ্রোহী।
তুই স্বাধীনতা বিরোধী।
তুই দেশ ছাড়।
তুই পাকিস্তানে গিয়ে তোর জারজ পিতাদের পা চাট।
বেরিয়ে যা শয়তানের চৌদ্দ খান্দান এই দেশে তোদের কোন স্থান নেই।”

অসাধারন আরেকটি খবর হচ্ছে মুজাহিদ ব্যাটা মাত্র ৬ হাজার ভোট পেয়েছে।
হাঃ হাঃ হাঃ
সাবাস বাঙ্গালী গর্জে উঠল আরেকবার।

Advertisements

নির্বাচন দিনের ভাবনা-১

“সৎ, যোগ্য প্রার্থীকে ভোট দিবো”- মোটামুটি এইছিলো যেই ভোটার কেই জিজ্ঞাস করা হয়েছে সেই এই উত্তর দিয়েছেন। কিন্তু প্রশ্ন হলো সততার প্রশ্ন ব্যাপক খবর নেয়ার দ্বারা কিঞ্চিত জানা গেলেও যোগ্যতা জানা বড়ই কঠিন।

এখনো ভোট দিতে যাই নাই। সকাল এগারোটা বাজে। চমৎকার রোদ ঝলমলে উজ্জ্বল দিন। প্রত্যাশার আলোতে উচ্ছল। আসবে কি সেই অনাগত শান্তির দিন? যেখানে একটি ইস্যু হবে সকলের প্রাণের দাবী, বিজয় হবে একজনের  — “বাংলাদেশ”।

জয়তু বাংলাদেশ।


কোন বিচার হবে না?

প্রথম আলোর বিজয় দিবসের বিশেষ সংখ্যা পড়তে পড়তে আর ঠিক সহ্য হলো না। তাই কি-বোর্ড তুলে নিলাম।

কতো মানুষ নিজের চোখের সামনে ছেলের, ভাইএর, স্বামীর, দেবরের, ভাশুরের হত্যা হতে দেখেছে। অসহ্য যন্ত্রণা বুকে নিয়ে এখনো দিন কাটাচ্ছে।

কত নারী নিজ ঘরের মাঝে আপন পরিবাবের সামনে সম্ভ্রম হারিয়েছে। অত্যাচারিত হয়েছে।

এইসবের কোন বিচার হবে না? শুধু বড় বড় কথা শুনে যাবো আমরা? আমাদের আবেগ নিয়ে রাজনীতি করে যাবে আমরা শুধু ঘুটি হয়ে যাবো?

সেক্টরস কমান্ডারস ফোরামের কাজ দেখে আশাবাদী হয়ে উঠেছিলাম। এই বার কিছু একটা হবে। কিন্তু হায় ! যখন দেখি এয়ার ভাইস মার্শাল এ কে খন্দকার সাহেবও নমিনেশন নিয়ে কোন রাজনৈতিক দলের দোরগোড়ায়। তখন আবার সন্দেহ, হতাশা আবার জাগ্রত হয় আবার ঘুটি হলাম মনে হয়। কারো মইয়ের ধাপ হলাম হয় তো।

কেনো সেক্টর কমান্ডারস ফোরামের নেতারা সস্তা রাজনৈতিক টিকিটের জন্য ছুটাছুটি করবেন?? একবার শুনেছিলাম ওনাদের আজ়ীবনের জন্য মন্ত্রী/প্রতিমন্ত্রির স্ট্যাটাস দেয়া হবে উনারা কোন রাজনৈতিক দল করবেন না। উনারা হবেন সমস্ত বাংলাদেশের। সবার।

এখন আমরা কাদের বিশ্বাস করবো যে যুধাপরাধী ইস্যুতে কোন রাজনৈতিক ফায়দা হাসিলের কোন উদ্দেশ্য নাই।

আর কতদিন আমরা যারা নিজেদের সব কিছু হারাল তাদের নিয়ে রাজনীতি করবো। কবে হবে বিচার? এভাবেই ছেড়ে দিবো আমরা? এতো হত্যা, এতো নির্জাতন, এতো ধ্বংস, এতো লুটপাট আমরা কোন বিচার পাব না? কবে ?